শনিবার , ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৯ | সকাল ৮:১৫

এইমাত্র পাওয়া:

৥ আমার বাংলা TV: পুরান ঢাকার চকবাজারে লাশ হস্তান্তর শুরু, ৪১ জনের পরিচয় শনাক্ত ৥
৥ আমার বাংলা TV: রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ,ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার শোক ৥
৥ আমার বাংলা TV: কক্সবাজার টেকনাফে র‌্যাব ও বিজিবির সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত ২ ৥
৥ আমার বাংলা TV: ২২ লাশ শনাক্তে ডিএনএ টেস্ট হবে স্বজনদের ৥
৥ আমার বাংলা TV: রাজধানী অগ্নিনির্বাপক ব্যবস্থা ছিল না ভবনে: ডিএসসিসির তদন্ত দল চকবাজারে অগ্নিকাণ্ড ৥
৥ আমার বাংলা TV: ময়মনসিংহে পুলিশের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে মাদক ব্যবসায়ী’ নিহত ৥
৥ আমার বাংলা TV: লাশের মিছিল গোটা দেশকে করেছে শোকার্ত ৥
৥ আমার বাংলা TV: রাসায়নিক বিক্রেতাদের আইনের আওতায় আনা হবে: ওবায়দুল কাদের ৥
৥ আমার বাংলা TV: পুরান ঢাকায় ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ড, মৃতের সংখ্যা বেড়ে ৭৮ ৥

চট্টগ্রামে ফেসবুকে স্ট্যাটাস দেওয়ায় মাদ্রাসা ছাত্রকে মারধর।

আমার বাংলা TV : ফেসবুকে স্ট্যাটাস দেওয়ায় চট্টগ্রামে এক মাদ্রাসাছাত্রকে অপহরণ করে বেধড়ক মারধর করা হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। সোমবার বিকেলে নগরের পাঁচলাইশ থানার জামেয়া আহমদিয়া সুন্নিয়া আলিয়া মাদ্রাসা থেকে ওই শিক্ষার্থীকে অপহরণ করা হয়। পরে ওই দিন রাতে আহত অবস্থায় রাউজান উপজেলার গহিরা এলাকায় তাকে ছেড়ে দেওয়া হয়। মারধরের বিষয়টি উল্লেখ করে মঙ্গলবার পাঁচলাইশ থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। এ ঘটনায় দুপুরে নগরের মুরাদপুর-বিবিরহাট এলাকায় বিক্ষোভ করেছে মাদ্রাসার শিক্ষার্থীরা। মারধরের শিকার ওই শিক্ষার্থী হলেন মোহাম্মদ ইয়াছিন আরাফাত। তিনি ফাজিল দ্বিতীয় বর্ষে পড়াশোনা করেনচট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ইয়াছিন আরাফাত সমকালকে বলেন, ‘গাউসুল আজম তো শুধুমাত্র আবদুল কাদের জিলানী (রহ.)। এখন বাংলাদেশে এত গাউসুল আজম কেন?।’ গত রোববার ফেসবুকে এই স্ট্যাটাস দিয়েছিলেন তিনি। সেখানে অনেকে হুমকি দিয়ে কমেন্ট করেছিলেন। পরে স্ট্যাটাসটি তিনি মুছে দেন।

তিনি আরও বলেন, ‘সোমবার বিকেল ৩টার দিকে বাসা থেকে বের হয়ে টিউশনিতে যাচ্ছিলাম। এ সময় ৬-৭টি মোটরসাইকেল ও দুটি সিএনজিচালিত অটোরিকশায় কয়েক যুবক এসে আমাকে ঘিরে ধরে। তারা আমাকে চোখ বেঁধে অটোরিকশায় তুলে ফেলে এবং মারধর করে। এর পর কোথায় নিয়ে যায় আমি জানি না। সেখানে নিয়েও আমাকে বেধড়ক পেটায়। আমি তাদের হাতে-পায়ে ধরে ক্ষমা চাই। একপর্যায়ে এসব নিয়ে আর লেখালেখি না করার হুমকি দিয়ে রাস্তায় ছেড়ে দেওয়া হয়। পরে দেখি আমি গহিরা মাদ্রাসার সামনে। সেখান থেকে লোকজনের সহায়তায় হাসপাতালে ভর্তি হয়েছি।’এদিকে তাকে মারধরের খবর ছড়িয়ে পড়লে মাদ্রাসাছাত্রদের মধ্যে উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে। মঙ্গলবার দুপুরে নগরের মুরাদপুর-বিবিরহাট এলাকায় বিক্ষোভ করে মাদ্রাসাটির ছাত্ররা। তারা অবিলম্বে দোষীদের গ্রেফতার করে শাস্তি নিশ্চিত করার দাবি জানান।পাঁচলাইশ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মহিউদ্দিন মাহমুদ সমকালকে বলেন, মাদ্রাসার এক ছাত্রকে তুলে নিয়ে মারধর করেছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। দোষীদের গ্রেফতারে অভিযান চালাচ্ছে পুলিশ।

আমার বাংলা নিউজ / নভেম্বর ০৭/২০১৮

About amarbangla

amarbanglanews

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *